ভালোবাসা: ঠিকানা তোমার বলো খুঁজি কোথায়! Valentine’s Day Special ❤️

আজ ১৪ ই ফেব্রুয়ারী, Valentine’s Day – অর্থাৎ, ভালোবাসা দিবস। মূলত পশ্চিমী দুনিয়া সহ প্রায় সারা বিশ্বেই এই দিনটি পালিত হয়ে থাকে। আর ভালোবাসার চিহ্ন হল — ❤️ (হৃদয়াকৃতি)। আসুন, আজ ভ্যালেন্টাইন’স্ দিবসে ভূগোলের আলোকে সেই ভালোবাসার ঠিকানা খুঁজে বেড়াই –

Valentine's Day Special
তাভারুয়া দ্বীপ, ফিজি

(১) দ্বীপঃ- পৃথিবীতে এরকম অনেক দ্বীপ আছে, যেগুলির আকৃতি পুরোপুরি বা অনেকাংশ ❤️-এর মতো। যেমন — ফিজি দ্বীপপুঞ্জের তাভারুয়া দ্বীপ (Tavarua Island) ; অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড প্রদেশে নুসা নদীর ওপর মেকপিস আইল্যান্ড (Makepeace Island) ; অস্ট্রেলিয়ার গ্রেট বেরিয়ার রিফের ‘হার্ট রিফ’ (Heart Reef) ; ইকুয়েডরের মানাবি প্রদেশের ইসলা কোরাজোন (Isla Corazon) ; ভারতের কর্নাটক রাজ্যের নেত্রানি দ্বীপ (Netrani Island) প্রভৃতি।

হার্ট লেক, অন্টারিও, কানাডা

(২) হ্রদঃ- পৃথিবীতে এরকম অনেক হ্রদ রয়েছে, যেগুলির আকৃতি পুরোপুরি বা অনেকাংশে ❤️-এর মতো। যেমন — আয়ারল্যান্ডের লেইনস্টার প্রদেশের লোফ ওউলার হ্রদ (Lough Ouler Lake) ; ফ্রান্সের মন্টাগনন হ্রদ (Lac du Montagnon) ; কানাডার অন্টারিও প্রদেশের ওমপাহ্ এর নিকট হার্ট লেক (Heart Lake) ; ভারতের কেরালা রাজ্যে পশ্চিমঘাট পর্বতের চেম্ব্রা শৃঙ্গের নিকট এরোস হ্রদ (Eros Lake) ; সংযুক্ত আরব আমীরশাহীর আল কুদ্রার নিকট ‘লাভ লেক’ (Love Lake) প্রভৃতি।

দ্য হার্ট অফ স্পেস উল্কাপিন্ড

(৩) উল্কাপিন্ডঃ- নাহ, এটি পৃথিবীর নয়, তবে মহাকাশ থেকে পৃথিবীতে এসেছে। হৃদয়াকৃতির উল্কাপিন্ড ❤️। ২৬️ মিটার চওড়া এই উল্কাপিন্ডের নাম ‘দ্য হার্ট অফ স্পেস’। ১৯৪৭ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি বায়ুমণ্ডল ভেদ করে পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়েছিল একটি উল্কাখণ্ড। রাশিয়ার সার্বিয়ার শিখোটে-আলিন পর্বতের উপর এই উল্কাটি পড়েছিল। উল্কার অভ্যন্তরীণ পাথর পরীক্ষা করে জানা গিয়েছে, সেটি প্রায় ৩২০ মিলিয়ন বছরের পুরনো এবং এর ওজন ছিল প্রায় ৯০০ কেজি। পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়ার সময় বায়ুমন্ডলের সঙ্গে সংঘর্ষে এর অধিকাংশ অংশ জ্বলে পুড়ে যায়।

হার্ট নীহারিকা

(৪) নীহারিকাঃ- অসীম ব্রহ্মান্ডেও আমরা ❤️
চিহ্ন খুঁজে পাব, যদি পৃথিবী থেকে ৭৫০০ আলোকবর্ষ দূরের ‘হৃদয় নীহারিকা’ (Heart Nebula) তে যাই! ১৭৮৭ সালে উইলিয়াম হার্শেল আবিষ্কৃত হৃদয় আকৃতির এই নীহারিকাটি ‘IC-১৮০৫’ নামেও পরিচিত। এই নীহারিকাটি প্রায় ২০০ আলোকবর্ষ জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে।

প্লুটো ও প্লুটোর হৃদয় চিহ্ন

(৫) বামন গ্রহ প্লুটোঃ- বামন গ্রহ প্লুটোতেও পাওয়া গেছে ভালোবাসার চিহ্ন ❤️। প্লুটোর নিরক্ষরেখার ঠিক উত্তরে অবস্থিত ‘টমবাগ রিজিও’। এই হৃদয়াকৃতি চিহ্নের অঞ্চলই হল প্লুটোর বৃহত্তম উজ্জ্বল ভূপৃষ্ঠীয় বৈশিষ্ট্য। ১৫৯০ কিমি ব্যাসের এই অঞ্চলটির নাম প্লুটোর আবিষ্কর্তার নামেই রাখা হয়েছে। নিউ হরাইজন মহাকাশযানই প্রথম এটিকে শনাক্ত করে।

ভালো লাগলে, আপনার ভালোবাসার মানুষের প্রতি শেয়ার করতেই পারেন এই পোস্ট, আজকের দিনে! ❤️😍💞

লেখকঃ- অরিজিৎ সিংহ মহাপাত্র, মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া & ভূগোলিকা-Bhugolika (পার্শ্বলা, বাঁকুড়া)।
তথ্যসূত্রঃ- উইকি সংকলন ; NASA ; আনন্দবাজার পত্রিকা।
©মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 193
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    193
    Shares

মন্তব্য করুন

error: মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত