আমূল পরিবর্তনের পথে কেন্দ্রীয় নিয়োগ প্রক্রিয়া ।। চালু হচ্ছে একক পরীক্ষা CET (Common Eligibility Test)

আমূল পরিবর্তনের পথে কেন্দ্রীয় নিয়োগ প্রক্রিয়া। 2019 সাল থেকে চালু হচ্ছে একক পরীক্ষা CET (Common Eligibility Test)। Banking, SSC এবং Railway Exams এর জন্য আর আলাদা আলাদা পরীক্ষা হবে না, একটাই পরীক্ষা হবে CET (Common Eligibility Test)।

CET Common Eligibility Test

কেন্দ্রীয় বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়ার অনিয়মতা, আইনি জটিলতা এবং বিভিন্ন কমিশনের নিয়োগ প্রক্রিয়ার ব্যর্থতা দূর করতে এবার অভিনবত্ব আনতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এতদিন পর্যন্ত SSC, Banking প্রভৃতি ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কমিশন কর্মী নিয়োগে বিভিন্ন সময় যোগ্যতা নির্ণায়ক পরীক্ষার ব্যবস্থা করে এসেছে। ফলে তাদের পরীক্ষার ধরন এবং সিলেবাস সমস্ত কিছুই একে অপরের থেকে আলাদা হতো স্বাভাবিক ভাবেই। আবার বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কারণে বাতিলও হয়ে গেছে কিছু পরীক্ষা যার প্রভাব পড়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়ায়। এই দুরবস্থা কাটাতে এবং নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দ্রুততা আনতে ভারত সরকার CET (Common Eligibility Test) এর প্রস্তাব আনে।

বর্তমানে সরকারী চাকরির ক্ষেত্রে সবথেকে বৃহৎ সংস্থা হল SSC বা Staff Selection Commission, কিন্তু বিগত 5 বছরে এই কমিশন কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন পরীক্ষা বাতিল হয়ে যাওয়ায় অসন্তোষের স্ফুলিঙ্গ উঠেছে বিভিন্ন মহলে। আবার 31/12/2017 এর কমিশন কর্তৃক একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী SSC কে ঘিরে 2220 টি মামলা রয়েছে যার মধ্যে আবার 80 টি মামলা রয়েছে মহামান্য সুপ্রিমকোর্টের বিচারাধীন। এমত অবস্থায় ভারত সরকার এবার নিয়োগ প্রক্রিয়ার প্রার্থী বাছাই পরীক্ষার কেন্দ্রীকরণ করে সর্ব ভারতীয় অভিন্ন প্রবেশিকা পরীক্ষা হিসাবে CET (Common Eligibility Test) এর প্রস্তাব আনে।

14ই মার্চ, 2018 এ উত্থাপিত রাজ্যসভার 95 নং প্রতিবেদন অনুযায়ী মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও স্নাতক এই তিন স্তরে CET নামক প্রবেশিকা পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। বর্তমান (2018-19) আর্থিক বছরে স্নাতক স্তরের CET (Common Eligibility Test) গ্রহণ করা হবে এবং 2019 এ অন্য দুই স্তরের CET আয়োজনের পথে হাঁটতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার।

এক নজরে CET এর কিছু প্রাথমিক তথ্য

1. CET একটি যোগ্যতা নির্ণায়ক প্রবেশিকা পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে বিভিন্ন দপ্তরের গৃহীত মূল পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাওয়া যাবে।

2. পরীক্ষা হবে হিন্দি ও ইংরাজী ভাষায়।

3. পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বা সফল প্রার্থীগণের CET Score এর বৈধতা থাকবে 2 বছর।

4. স্নাতক স্তরের CET গ্রহণ করা হবে বর্তমান আর্থিক বছরে।

5. মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরের CET অনুষ্ঠিত হবে 2019 আর্থিক বছরে।

6. এই সর্ব ভারতীয় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কমিশনের ওয়েবসাইটে নথিবদ্ধ (Registration) হওয়া বাধ্যতামূলক। নথিভুক্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেই কমিশন প্রদত্ত Registration No সঠিক ভাবে সংগ্রহ করে ভালোভাবে রাখতে হবে। CET এর জন্য আবেদনের (Application) সময় ঐ নম্বর প্রয়োজন হবে।

কেন্দ্রীয় নিয়োগ পরীক্ষা পদ্ধতি পরিবর্তনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা আসতে চলেছে চাকুরী প্রার্থীদের। আগের মতো আর বিভিন্ন দপ্তরের জন্য আলাদা আলাদা পরীক্ষার জন্য প্রচুর টাকা খরচ করতে হবে না। বিভিন্ন পরীক্ষার সিলেবাসের বোঝা বইতে হবে না ফলে একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে সুবিধে হবে। প্রত্যেকের Ranking অনুযায়ী চাকরী পাওয়ার সুযোগ থাকবে। এবং সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে কম Ranking এর সফল পরীক্ষার্থীগন বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সরাসরি নিযুক্ত হতে পারবে। অর্থাৎ কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তে বেকার যুবক যুবতীর বেকারত্বের সংখ্যা বৃহৎ মাত্রায় কমবে তা স্পষ্ট। এখন দেখার বিষয় সিদ্ধান্ত কতটা বাস্তবের মাটি ছুঁতে পারে।

-মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া ।।

আরও পড়ুন “চালু হচ্ছে চার বছরের ইন্টিগ্রেটেড বি.এড কোর্স ।। অন্যান্য প্রশিক্ষণ কোর্স বন্ধ হতে চলেছে”

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 1K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1K
    Shares

Leave a Reply

মন্তব্য করুন

error: মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত