ভারতের ‘রাজ’ উপজাতি সম্প্রদায় – গণ্ড

ভারতীয় জটিল সমাজ ব্যবস্থার এক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ উপজাতি I বিশ্বের বৃহত্তম উপজাতি সমৃদ্ধ দেশ ভারত, যা ভারতীয় মোট জনসংখ্যার 8.6% এবং সংখ্যাগত ভাবে প্রায় 104 মিলিয়ন I এদেশে আর্য সভ্যতার বিকাশের পূর্বে 81 মিলিয়ন উপজাতি বসবাস করতো বলে ঐতিহাসিকদের অনুমান I ভারতে সমাজ বিকাশের সূচনা হয় 30-60 হাজার বছর পূর্বে আদিবাসী সম্প্রদায়ের হাতেই I ভারতে প্রায় 570 এর অধিক উপজাতি সম্প্রদায় রয়েছে যারা সুপ্রাচীন কাল থেকে ভারতীয় সংস্কৃতির অন্যতম প্রধান ধারক I মধ্য ভারতে ভারতের প্রায় 75% আদিবাসী বসবাস করে I পরাধীন ভারতে 1941 সালের আদমশুমারি অনুসারে উপজাতি সংখ্যা ছিল 10 মিলিয়ন I 1949 সালে এই উপজাতি সম্প্রদায় ‘আদিবাসী’ তকমা পায় সংবিধানিক ভাবে I

উপজাতির মধ্যে বৃহত্তম সম্প্রদায় হলো ভিল উপজাতি (37.7%, মোট উপজাতির) এবং দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গণ্ড যা উপজাতি সম্প্রদায়ের 35.6% I গণ্ড উপজাতি ‘রাজ গণ্ড’ নামেও পরিচিত, 1950 এর দশকে উপজাতির এই নাম প্রচলিত হয় I গণ্ড উপজাতির বর্তমান মোট জনসংখ্যা 13,2,56,928 (2011) I এই উপজাতি ছত্তিশগড় মালভূমি অঞ্চল, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট সহ ছোটনাগপুর মালভূমি অঞ্চলে বসবাস করে I মূলতঃ মধ্য ভারতের উচ্চ (700-900 মিটার) ভূমিভাগে বসবাস করায় এরা ‘Hill Man’ নামেও পরিচিত I মধ্যপ্রদেশে এই উপজাতির সংখ্যা সর্বাধিক, প্রায় 50, 93,124 এবং গুজরাটে কম প্রায় 2,965 জন I পশ্চিমবঙ্গে 13,535 জন গণ্ড সম্প্রদায়ের লোক বসবাস করেন I ভৌগোলিক ভাবে এরা 17 ডিগ্রি 46 মিনিট উত্তর থেকে 24 ডিগ্রি উত্তর ও 80 ডিগ্রি থেকে 86 ডিগ্রি পূর্ব এর মধ্যবর্তী অঞ্চলে অধিক ভাবে বিস্তৃত I ভারতের প্রাচীণ ভূখণ্ড ‘Gondowanaland’ থেকে এই সম্প্রদায়ের নাম ‘Gond’ এর উত্পত্তি I খ্রিস্টপূর্ব 1500 থেকে 1800 খৃষ্টাব্দের মধ্যে এরা দণ্ডকারণ্য, ছত্তিশগড়, বিন্ধ্যচল ও বূন্দেলখণ্ড ইত্যাদি স্থানে এরা শাসনকার্য চালায় যার ফলে গণ্ড উপজাতি ‘রাজ গণ্ড’ নামেও পরিচিত I

গণ্ড উপজাতি E.von Eickstedt (1926-29) কৃত ‘Veddid’ নামক প্রধান ভারতীয় প্রজাতির ‘Gondid’ নামক উপপ্রজাতির অন্তর্গত I এরা কালো,মোটা ও ধূসর রঙের হয়ে থাকে I শরীর সুগঠিত, চুল কালো মোটা এবং কোঁকড়ানো প্রকৃতির I নাক চ্যাপ্টা, ঠোঁট মোটা এবং মুখ চওড়া প্রকৃতির হয়ে থাকে I এদের গড় উচ্চতা 165 সেমিঃ I মেয়েরা শারিরীক দিক থেকে সুন্দর ও সুগঠিত I এই উপজাতি নিষ্ঠাবান, উদার সাহসী ও সত্যবাদী প্রকৃতির I স্থানীয়ভাবে এরা হিন্দি, মারাঠি, তেলেগুগণ্ডি, সাঁওতালি ভাষায় রপ্ত I কোঈতুর বা গোন্ডি হলো এদের অবলম্বিত ধর্ম I এদের প্রধান জীবিকা শিকার I এছাড়া এরা ঝুম বা স্থায়ী কৃষিকার্যের মাধ্যমেও জীবন অতিবাহিত করে I ঝুম কৃষিকার্য কে এরা ‘দীপা’ বা ‘প্রয়কা’ নামে এবং স্থায়ী কৃষিকে ‘পেন্ডা’ নামে অভিহিত করে I এরা পাহাড়ী মারিয়া, দাদমি মারিয়া, সুরিয়া, ধকড়, রাওয়াত ইত্যাদি সম্প্রদায়ে বিভক্ত I পরিবার পিতৃতান্ত্রিক I

লেখকঃ গোপাল মণ্ডল (সহকারী সম্পাদক, মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া)।
তথ্যসূত্র :- গণ্ড উইকিপিডিয়া, এনসাইক্লোপিডিয়া, ‘Geography of India’ – R.C. Tiwary.

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 29
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    29
    Shares

মন্তব্য করুন

error: মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত