পৃথিবীর গভীরতম, প্রাচীনতম ও স্বচ্ছতম হ্রদ বৈকাল

রাশিয়ার পূর্ব সাইবেরিয়ার দক্ষিন প্রান্তে, বুরয়াটিয়া রিপাবলিক ও ইরকুটস্ক প্রদেশের মধ্যে অবস্থিত বৈকাল হ্রদ হল একটি মহাদেশীয় চ্যূতি হ্রদ। বৈকাল হ্রদ হল পৃথিবীর গভীরতম, প্রাচীনতম ও স্বচ্ছতম হ্রদ। এই হ্রদ ‘সাইবেরিয়ার মুক্তো’ (The Pearl of Siberia), ‘রাশিয়ার গ্যালাপাগোস’ (Galapagos of Russia), ‘Ozero Bajkal’ নামেও পরিচিত। মেসোজোয়িক যুগে সৃষ্ট এই হ্রদটির সর্বাধিক দৈর্ঘ্য ৬৩৬ কিমি ; সর্বাধিক প্রস্থ ৭৯ কিমি ; আয়তন ৩১,৭২২ বর্গ কিমি ; গড় গভীরতা ৭৪৪.৪ মিটার ; সর্বাধিক গভীরতা ১৬৪২ মিটার ; ধারন অববাহিকার আয়তন ৫,৬০,০০০ বর্গ কিমি ; সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে উচ্চতা ৪৫৫.৫ মিটার ও উপকূল দৈর্ঘ্য ২১০০ কিমি। বৈকাল হ্রদে ৩৩০ টিরও বেশি নদী পতিত হয়েছে, যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল — সেলেঙ্গে নদী, বারগুজিন নদী, উর্দ্ধ আঙ্গারা নদী, তুরকা নদী, সরমা নদী, চিকোই নদী, স্নেঝনায়া নদী প্রভৃতি। বৈকাল হ্রদ থেকে নির্গত একমাত্র নদী হল — আঙ্গারা নদী। আয়তন অনুসারে (ভূপৃষ্ঠস্থ ক্ষেত্রফল), বৈকাল হ্রদ পৃথিবীর সপ্তম বৃহত্তম হ্রদ। এটি পৃথিবীর প্রাচীনতম হ্রদ, যা আনুমানিক ২৫-৩০ মিলিয়ন বছর আগে সৃষ্টি হয়েছে। বৈকাল হ্রদ পৃথিবীর স্বচ্ছতম হ্রদ। এই হ্রদের জলের নীচে ৪০ মিটার পর্যন্ত স্পষ্ট দেখা যায়। ১৬৪৩ সালে কুরবাট ইভানভ প্রথম ইউরোপীয় হিসেবে বৈকাল হ্রদে পৌঁছান। ১৯৯৬ সালে ইউনেস্কো বৈকাল হ্রদকে World Heritage Site হিসেবে ঘোষণা করে।

আরও দেখুন “ভারতের ভূগোলের ১০০টি প্রশ্ন ও উত্তর”

বৈকাল হ্রদ মহাদেশীয় চ্যূতির ওপর সৃষ্টি হয়েছে। এই হ্রদের তলদেশ সমুদ্রতল থেকে ১১৮৬.৫ মিটার নীচুতে অবস্থিত, কিন্তু এর নীচে ৭ কিমি পুরু সঞ্চিত পলিস্তর রয়েছে। বৈকাল হ্রদের চ্যূতিতল ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৮-১১ কিমি নীচে অবস্থিত, যা পৃথিবীর গভীরতম মহাদেশীয় চ্যূতি। এই চ্যূতি অঞ্চলটি নবীন ও সক্রিয় প্রকৃতির এবং প্রতি বছর ২ সেমি হারে প্রশস্ত হচ্ছে। এই অঞ্চলটি ভূকম্পগত ভাবে সক্রিয় এবং উষ্ণ প্রস্রবণ ও একাধিক ভূমিকম্পের ঘটনা তারই প্রমান। বৈকাল হ্রদকে ভূ-প্রাকৃতিক ভাবে ৩ ভাগে ভাগ করা যায় — ১) উত্তর অববাহিকা (গড় গভীরতা ৯০০ মিটার) ২) মধ্য অববাহিকা (গড় গভীরতা ১৬০০ মিটার) ও ৩) দক্ষিন অববাহিকা (১৪০০ মিটার)। উত্তর ও মধ্য অববাহিকা-কে অ্যাকাডেমিসিয়ান শৈলশিরা এবং মধ্য ও দক্ষিন অববাহিকা-কে বুগুলডেইকা স্যাডেল & সেলেঙ্গে ডেল্টা বিচ্ছিন্ন করেছে। বৈকাল হ্রদ চারিদিকে সায়ান পর্বত ও বৈকাল পর্বত দ্বারা বেষ্টিত রয়েছে।

আরও দেখুন “বিশ্বের বৃহত্তম জলগুহা আলী সর্দ”

“Baikal” (বৈকাল) শব্দটি Turkic শব্দ ‘Baykul’ থেকে উদ্ভূত। ‘Bay’-এর অর্থ হল ‘Rich’ ও ‘Kul’-এর অর্থ হল ‘Lake’, অর্থাৎ Baikal শব্দটির অর্থ হল — ‘Rich Lake’।

বৈকাল হ্রদের অববাহিকা অঞ্চল রাশিয়া ও মঙ্গোলিয়া– এই দুটি দেশে অবস্থিত। এই হ্রদে ২৭ টি দ্বীপ রয়েছে, যার মধ্যে বৃহত্তম হল ওলখন (আয়তন ৭০০ বর্গ কিমি)। বৈকাল হ্রদে নানা প্রকার উদ্ভিদ ও প্রাণী প্রজাতির সমাবেশে এক অসাধারন জীববৈচিত্র্য গড়ে উঠেছে। এই হ্রদের প্রধান উদ্ভিদ প্রজাতি গুলি হল — Marsh Thistle, Cirsium Palustre, Algae, Oligochets, Navicula Radiosa, Cladophora প্রভৃতি এবং প্রধান প্রাণী প্রজাতি গুলি হল — Baikal Seal বা Nerpa, Grayling, Omul, Sculpins, Baikal Oilfish বা Golomynka, Snails, Sig Fish, Sturgeon, Bullhead প্রভৃতি।

আরও দেখুন “পশ্চিমবঙ্গের ভূগোলের প্রশ্ন ও উত্তর”

বৈকাল হ্রদ সঞ্চিত জলের আয়তনের ভিত্তিতে পৃথিবীর বৃহত্তম মিষ্টি জলের হ্রদ। এই হ্রদে সঞ্চিত জলের আয়তন হল ২৩,৬১৫.৩৯ ঘন কিমি। বৈকাল হ্রদ পৃথিবীর জমাটহীন ভূপৃষ্ঠস্থ মিষ্টি জলের ২০% সঞ্চয় অধিকার করে রয়েছে। বৈকাল হ্রদ অঞ্চলের প্রধান শিল্প হল — অভ্র শিল্প, মার্বেল শিল্প, কাগজ শিল্প, মৎস্য শিল্প, পর্যটন শিল্প প্রভৃতি। বৈকাল হ্রদ অঞ্চলের প্রধান জনবসতি হল — ইরকুটস্ক, লিস্টভিয়ানকা, ভিদ্রিনো, স্লায়ুডিয়ানকা, কুলটুক প্রভৃতি। বৈকাল হ্রদ বছরের ৪-৫ মাস (ডিসেম্বর – জানুয়ারি থেকে এপ্রিল-মে) বরফাবৃত থাকে। বৈকাল হ্রদ অঞ্চলের গ্রীষ্মকালীন গড় উষ্ণতা ১০ থেকে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও শীতকালীন গড় উষ্ণতা -১৯ থেকে -২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৈকাল হ্রদের জলের বার্ষিক গড় উষ্ণতা ২.৫ থেকে ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৈকাল হ্রদ ‘Old Sister of Sister Lakes’ (খোভসগোল হ্রদ ও বৈকাল হ্রদ) নামেও পরিচিত। এই হ্রদের দঃ ও দঃ-পঃ উপকূলে ট্রান্স-সাইবেরিয়ান রেলপথ রয়েছে।

আরও দেখুন “বিভিন্ন কাজে নিযুক্ত কর্মীর পোশাক ও নাম”

রাশিয়ার বৈকাল হ্রদ ভৌগোলিক বিচিত্রময়তায়, নৈসর্গিক সৌন্দর্য্যে, জীব বৈচিত্র্যতায়, লোকগাথায়, রহস্যময় প্রকৃতিতে সত্যিই অনুপম।

লেখকঃ অরিজিৎ সিংহ মহাপাত্র।।
©মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া।।

 বিশ্বের প্রাচীনতম হ্রদ বৈকাল

ভূপৃষ্ঠে বৃহৎ অবনমিত অঞ্চলে জল জমে গড়ে ওঠা দীর্ঘস্থায়ী জলাধারকে বলা যায় হ্রদ I বিভিন্ন কারণে হ্রদের উৎপত্তি হয়ে থাকে I পৃথিবী পৃষ্ঠে অবস্থিত বিভিন্ন হ্রদের উৎপত্তির সময়কাল সমন্ধে গবেষণার মাধ্যমে প্রাপ্ত ফলাফল থেকে বিজ্ঞানীরা মনেকরেন যে সর্বাধিক প্রাচীন হ্রদের উৎপত্তি প্রায় 25 মিলিয়ন বছর পূর্বে I অর্থাৎ Pleozoic যুগে বিশেষতঃ এই যুগের Mesozoic পর্বে I এই সময়কালে উৎপন্ন হয় পৃথিবীর সর্ব প্রাচীন হ্রদ বৈকাল (প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে ভূবিজ্ঞানীদের একাংশের মতে পৃথিবীর প্রাচীনতম হ্রদ হল পূর্ব কাজাকস্থানের টারবাগতি ও আলতাই পর্বতের মধ্যে অবস্থিত যায়সান (Zaysan) হ্রদ, যার আনুমানিক উৎপত্তিকাল 65 মিলিয়ন বছর পূর্বে I কিন্তু এর স্বপক্ষে তেমন জোরালো প্রমাণ না পাওয়ায় এবং সঠিকভাবে গবেষণার অভাবে নির্দিষ্ট প্রকৃত উৎপত্তিকাল নির্ণয় সম্ভব হয়নি তাই বৈকাল হ্রদকেই পৃথিবীর প্রাচীনতম হ্রদ হিসেবে মান্যতা দেওয়া হয়)I বৈকাল হ্রদ দক্ষিণ-পশ্চিম সাইবেরিয় অংশে 3.5 মিলিয়ন হেক্টর এলাকা জুড়ে বিস্তৃত পৃথিবীর 20% স্বচ্ছ জলের ধারক I মঙ্গোলিয়ার উত্তরে রাশিয়ান ফেডারেশন এর দক্ষিণাংশে 103 ডিগ্রি পূর্ব থেকে 110 ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশ এবং 51ডিগ্রি উত্তর থেকে 56 ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশের মধ্যে বাঁকানো তরবারীর আকারে অবস্থিত বৈকাল হ্রদ মূলতঃ একটি গ্রস্থ উপত্যকা সৃষ্ট হ্রদ I ভূবিদদের মতে এই অংশে সাইবেরিয়ান ভূখণ্ড এবং বিভিন্ন পাতের চলনের ফলে ভূআলোড়নের কারণে ভূমিখণ্ড ধ্বসে গিয়ে গ্রস্থ উপত্যকা সৃষ্টির মাধ্যমে হ্রদের সৃষ্টি হয় I ইহা বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম হ্রদ I এই হ্রদের গড় গভীরতা 744 মিটার এবং সর্বাধিক গভীরতা 1642 মিটার যা হ্রদটিকে পৃথিবীর গভীরতম হ্রদের মর্যাদা প্রদান করে I এই হ্রদের মোট জলের পরিমাণ 23,615.39 ঘন কিঃমিঃ যা ক্যাস্পিয়ান সাগরের জলের তিন ভাগের এক ভাগ এবং পঞ্চহ্রদের সম্মিলিত জলের পরিমাণের অধিক I জলের গড় উষ্ণতা 4 ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড এর উপর যায় না এবং জানুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত জল জমে বরফের চাদরে পরিণত হয় I বৈকাল থেকে রাশিয়ার স্বচ্ছ জলের 80% যোগান মেলে I

বৈকাল হ্রদ পৃথিবীর প্রাচীনতম ও গভীরতম হওয়ার সাথে সাথে অন্যতম স্বচ্ছও I এর জল এতটাই স্বচ্ছ যে 40 মিটার গভীরতা পর্যন্ত অংশে হ্রদের প্রাণীকূল ও উদ্ভিদ কূল অনায়াসে দেখা যায়, এই কারণে একে ‘রাশিয়ার মুক্তা’ (Pearl of Russia) নামেও অভিহিত করা হয় I বৈকাল হ্রদ জীববৈচিত্রভূমির অন্যতম বাস্তুক্ষেত্র I এখানে উপস্থিত 1,340 প্রজাতির প্রাণী এবং 570 প্রজাতির উদ্ভিদ এই জলজ জীববৈচিত্রভূমিকে অন্য মাত্রা প্রদান করে যা থেকে এর ডাকনাম ‘The Galapasos of Russia’ এর উৎপত্তি I এখানে প্রচুর পরিমাণে স্বচ্ছ জলের শীলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় I এই জলজ জীববৈচিত্রভূমিটিকে 1996 সালে UNESCO World Heritage Site এর মর্যাদা প্রদান করে I

লেখকঃ গোপাল মণ্ডল।।
©মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া।।

আরও দেখুন “ভূগোলের জিকে ভাণ্ডার ।। প্রথম পর্ব ৫০০টি প্রশ্ন ও উত্তর।।”

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 209
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    209
    Shares

Leave a Reply

Leave a Reply

error: মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত